1. admin@banglahdtv.com : Bangla HD TV :
বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ০২:০৭ পূর্বাহ্ন

প্রথমে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী টিকা নিলে মানুষ ভরসা পাবে: বিএনপি

Coder Boss
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৮২ Time View

ভারতের উপহার দেওয়া করোনাভাইরাসের টিকা প্রথমে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এবং প্র্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বিএনপি বলছে, আপনারা আগে টিকা নিলে জনগণ ভরসা পাবে। এ টিকা নিতে সাহস পাবে গোটা দেশবাসী। টিকা নিয়ে ভ্রান্ত ধারণা কাটাতে সহায়ক হবে। অনাগ্রহ কাটিয়ে দেশবাসীকে টিকা নিতে আগ্রহী করে তুলবে।

আজ শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) রাজধানীর নয়াপল্টনে দলটির প্রধান কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ আহ্বান জানান বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, করোনার টিকা নিয়ে দেশবাসীর মধ্যে সন্দেহ রয়েছে। এই সন্দেহ দূর করতে এবং দেশবাসীকে আগ্রহী করতে টিকা প্রথমে রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রীকে নেওয়ার দরকার। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানরা যেভাবে টিকার প্রথম ডোজ নিয়ে মানুষকে আস্থা ও ভরসা দিচ্ছেন এবং আশ্বস্ত করছেন, আপনারাও সেই পথ অনুসরণ করুন। তাদের মতো আপনারাও সাহসী পদক্ষেপ নিন।

রিজভী বলেন, করোনাভাইরাসের টিকা সরকারি মন্ত্রী, এমপিদের বাদ দিয়ে যখন সাধারণ মানুষকে দেওয়ার কথা বলা হয়, তখন দেশের মানুষ চিন্তিত হয়ে পড়েন। বিএনপি আশা করে প্রথম টিকাটি প্রধানমন্ত্রীর নেওয়ার দৃশ্য সরাসরি টেলিভিশনে সম্প্রচার করা হবে। আর যদি প্রথমবার টিকা না নেন, তাহলে জনগণ নিশ্চিত হবে, আপনাদের সবকিছুই ভণ্ডামি ও ছলচাতুরী। জনগণকে কোনো দেশের পরীক্ষাগারের গিনিপিগ বানাতে চাচ্ছেন। গরীব সাধারণ আমজনতাকে আগে ভ্যাকসিন দিয়ে দেখবেন ওরা মরে না বাঁচে।

গতকাল বৃহস্পতিবার ভারত সরকারের সৌজন্যে বাংলাদেশে ২০ লাখ ডোজ টিকা পাঠানো হয়েছে। দেশটির সেরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া (এসআইআই) থেকে ভ্যাকসিনের তিন কোটির ডোজ কিনছে বাংলাদেশ এবং ৫০ লাখ শটের প্রথম চালান আগামী ২৫ জানুয়ারি ঢাকায় আসবে বলে আশা করা হচ্ছে।

রিজভী বলেন, ভারতের পাঠানো ভ্যাকসিনটি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি নাকি ভারত বায়োটেকের উদ্ভাবিত টিকা, এ নিয়েও জনমনে গভীর সন্দেহ-সংশয় রয়েছে। আমরা যতদূর জানি কোভিড-১৯ মোকাবিলায় এখন পর্যন্ত ভারত তাদের দেশে দুই ধরনের টিকা অনুমোদন দিয়েছে। একটি হচ্ছে ব্রিটেনের অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি এবং ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা অ্যাস্ট্রাজেনেকার মিলিত গবেষণায় তৈরি টিকা “কোভিশিল্ড’। অপরটি হচ্ছে ভারত-বায়োটেকের উদ্ভাবিত টিকা “কোভ্যাক্সিন”। এই দুটি টিকাই উৎপাদন করছে ভারতের উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সেরাম ইনস্টিটিউট। তবে ভারত সরকার বাংলাদেশে কোনটি পাঠিয়েছে সেটা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে।

ভারতের গণমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনের কথা উল্লেখ করে বিএনপির এ নেতা বলেন, ভারতে টিকা নেওয়ার পর চার দিনে তিন জন মারা গেছেন। পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে প্রায় ৬০০ জন। দেশটির চিকিৎসকরা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। বিতর্কিত কোভ্যাক্সিন টিকা নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন দেশটির চিকিৎসকদের বড় অংশ।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2020 banglahdtv
Design & Develop BY Coder Boss