1. admin@banglahdtv.com : Bangla HD TV :
বৃহস্পতিবার, ০৫ অগাস্ট ২০২১, ০৯:২১ অপরাহ্ন

৫৫ হাজার রোহিঙ্গার বাংলাদেশী এনআইডি, ৪ ইসি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা

বিশেষ প্রতিনিধি
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন, ২০২১
  • ৩৮ Time View

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) হারিয়ে যাওয়া ল্যাপটপ দিয়েই রোহিঙ্গাসহ ৫৫ হাজারের বেশি ব্যক্তিকে অবৈধভাবে ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করার প্রমাণ পেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এ ঘটনায় নির্বাচন কমিশনের পরিচালকসহ চার কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার দুপুরে মামলার পরপরই বদলি করা হয়েছে মামলার বাদী দুদক কর্মকর্তাকে।

দুদক সচিব ড. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার জানান, খুঁজে না পাওয়া একটি ল্যাপটপেই ৫৫ হাজারের বেশি রোহিঙ্গার বাংলাদেশী জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) করে ব্যক্তিগতভাবে লাভবান হন ওই কর্মকর্তারা।

দুদক সূত্রে জানা গেছে, ২০১৫ সালের ২১ অক্টোবর ‘হারিয়ে যাওয়া’ একটি ল্যাপটপসহ বিভিন্ন সরঞ্জাম নির্বাচন অফিসের সাবেক টেকনিক্যাল এক্সপার্ট মোস্তফা ফারুকের কাছে হস্তান্তর করেন রাসেল বড়ুয়া। তারা এসব নিয়ে যান চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয়ে। এরপর ২০১৫ সালে ওইগুলো ফেরত দেন মিরসরাইয়ের সাবেক উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা। পরবর্তীতে বিভিন্ন উপজেলায় সেটি ব্যবহার করার কথা বলা হলেও তার আর কোনো হদিস পাওয়া যায়নি।

বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামে দায়ের করা দুদকের মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, আত্মসাৎকৃত ল্যাপটপসহ আরো কয়েকটি ল্যাপটপ ব্যবহার করেই রোহিঙ্গাসহ মোট ৫৫ হাজার ৩১০ জনকে অবৈধভাবে ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এই অভিযোগে নির্বাচন কমিশনের এক পরিচালকসহ চারজনকে আসামি করে মামলা করেন দুদকের (চট্টগ্রাম-১) উপ-সহকারী পরিচালক শরীফ উদ্দীন।

মামলার এজাহারভুক্ত আসামিরা হলেন- নির্বাচন কমিশনের পরিচালক খোরশেদ আলম, কক্সবাজারের রামু উপজেলা নির্বাচন অফিসার মাহফুজুল ইসলাম, পটিয়া উপজেলা নির্বাচন অফিসের অফিস সহকারী রাসেল বড়ুয়া ও চট্টগ্রাম পাঁচলাইশ থানা নির্বাচন অফিসের সাবেক টেকনিক্যাল এক্সপার্ট মো. মোস্তফা ফারুক।

দুদক সচিব ড. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার বলেন, ভুয়া এনআইডি কার্ডের কার্যক্রম তারা চালিয়েছে। আমরা যাদের (রোহিঙ্গা) বলি তারা আমাদের দেশের নাগরিক না। তারা যদি এনআইডি কার্ড পেয়ে যায়, তাহলে এটা দিয়ে পাসপোর্ট তৈরি করতে পারবে। বিদেশে যেতে পারবে। এখানে রাষ্ট্র সংশ্লিষ্ট বিষয় জড়িত। পাসপোর্টধারী ব্যক্তি বিদেশে গিয়ে অপরাধ করলে দায়টা আসবে বাংলাদেশের ওপর। এই প্রক্রিয়া যদি বন্ধ না করা হয়, তাহলে অনেকেই এমন অবৈধ সুযোগ পেয়ে যেতে পারে।

এ দিকে মামলার কয়েক ঘণ্টা পরই চট্টগ্রাম থেকে পটুয়াখালীতে বদলি করা হয় মামলার বাদী ও চট্টগ্রামের দুদক কর্মকর্তা শরীফ উদ্দীনকে।

এ ব্যাপারে দুদক সচিব বলেন, যারা কোনো স্থানে আড়াই বছরের ওপরে আছে, তাদের রিঅ্যারেঞ্জ (রদবদল) করা হয়। তা নাহলে এখানেও সমস্যা হতে পারে। এর সাথে মামলার কোনো সম্পর্ক নেই বলে দুদক সচিব জানান।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2020 banglahdtv
Design & Develop BY Coder Boss